ঢাকা, ১৪ এপ্রিল ২০২১, বুধবার

সঠিক উপায়ে ত্বকের যত্ন নেবেন যেভাবে

Facebook
WhatsApp
Twitter
Google+
Pinterest
ত্বক

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য টক দই ও বেসনের প্যাক ব্যবহার করতে পারেন। চাইলে শুধু কমলার রস নিয়ে তুলা দিয়ে মুখে লাগিয়ে নিতে পারেন। তবে ব্রণ থাকলে কমলার রস মুখে লাগাবেন না। শসা ব্লেন্ড করেও ব্যবহার করা যায়। গাজর, হলুদ আর টক দইয়ের মিশ্রণও প্যাক হিসেবে ব্যবহার করা যায়।

ঋতুবদলের এ সময় শরীরের পাশাপাশি ত্বকও হয়ে পড়ে অসুস্থ। এজন্য শরীর সুস্থ রাখার পাশাপাশি এ সময় ত্বকের যত্ন নেয়াও জরুরি। না হলে ত্বক কালচে ও শুষ্ক হয়ে যেতে পারে।

মেকআপের আগে কেন প্রয়োজন ত্বকের যত্ন নেয়া

দৈনন্দিন অফিসের কাজ ও নানা ধরনের ব্যস্ততার জন্য চেহারায় নানা রকমের ক্লান্তি ফুটে ওঠে। তাই পহেলা বৈশাখের আগেই ত্বকের যত্ন নেয়া জরুরি। এমনিতেই আবহাওয়া বেশ গরম। পহেলা বৈশাখের দুই সপ্তাহ আগে থেকে মুখের যত্ন নিলে হঠাৎ মেকআপে আপনার মুখের ত্বকে কোনো রকম সমস্যা হবে না। উজ্জ্বল ত্বকের ক্ষেত্রে সমস্যা সাধারণত কম হয়। সমস্যা দেখা যায় যাদের তৈলাক্ত ও শুষ্ক ত্বক। তাই বাড়তি পরিচর্যার প্রয়োজন।

তৈলাক্ত ত্বক

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য টক দই ও বেসনের প্যাক ব্যবহার করতে পারেন। চাইলে শুধু কমলার রস নিয়ে তুলা দিয়ে মুখে লাগিয়ে নিতে পারেন। তবে ব্রণ থাকলে কমলার রস মুখে লাগাবেন না। শসা ব্লেন্ড করেও ব্যবহার করা যায়। গাজর, হলুদ আর টক দইয়ের মিশ্রণও প্যাক হিসেবে ব্যবহার করা যায়। অতিরিক্ত তৈলাক্ত ভাব থাকলে এক-দুই ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে নিতে পারেন। এ ছাড়া সপ্তাহে দুই-তিনবার মুখে মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন। এতে ত্বকের ময়লা দূর হবে এবং ত্বক উজ্জ্বল দেখাবে।

শুষ্ক ত্বক

শুষ্ক ত্বকের জন্য দুধের সর, মসুর ডাল ও মধু দিয়ে প্যাক তৈরি করতে পারেন। কাঠবাদাম, হলুদ, দুধের সর ও মধু দিয়ে প্যাক তৈরি করুন। শুধু অ্যালোভেরার রসও ব্যবহার করতে পারেন। চাইলে দুধ, মধু ও জাফরানের প্যাক লাগাতে পারেন। দুধের সর, মুলতানি মাটি ও ময়দা বা বেসন মিশিয়েও ব্যবহার করা যায়।

স্ক্রাবিংয়ের জন্য কাঠবাদাম, হলুদ, দুধের সর ও মধুর মিশ্রণে চালের গুঁড়া মিশিয়ে নিতে পারেন। তৈলাক্ত ত্বক স্ক্রাবিংয়ের জন্য গাজর, হলুদ ও টক দইয়ের সঙ্গে চালের গুঁড়া মেশানো যায়। এসব স্ক্র্যাবার হাত-পায়ের জন্যও ভালো।

স্বাভাবিক ত্বক

স্বাভাবিক ত্বকের জন্য হলুদ, দুধের সর, মধু ও মসুর ডালের বেসন দিয়ে প্যাক তৈরি করা যায়। এর সঙ্গে চালের গুঁড়া মিশিয়ে নিলে স্ক্র্যাবিং করতে পারবেন। অনেকেই মনে করতে পারেন স্বাভাবিক ত্বকের জন্য আবার কেন? কিন্তু সব ধরনের ত্বকের জন্যই চাই পরিচর্যা।

কোমল ঠোঁটের জন্য

ঠোঁটের কালো ভাব দূর করতে এক চা চামচ মধু, এক চা চামচ লেবুর রস ও এক চা চামচ চিনি মিশিয়ে স্ক্রাব বানিয়ে প্রতিদিন তিন-চার মিনিট ঠোঁটে হালকা করে ম্যাসাজ করুন। ঠোঁট মসৃণ করতে আমন্ড তেল, দুধের সর ও মধু মিশিয়ে লাগাতে পারেন। এ ছাড়া ঘাড় ও পিঠের কালো ছোপ দূর করতে মসুর ডাল বাটা, দই এবং কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে ঘাড় ও পিঠে লাগিয়ে রাখতে হবে। আধাঘণ্টা পর আলতো করে ঘষে তুলে ফেলতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *