ঢাকা, ২০ জুন ২০২১, রবিবার

গঙ্গায় ভাসছে লাশের সারি, ঘুরছে কুকুর

Facebook
WhatsApp
Twitter
Google+
Pinterest
ভারত

ওই এলাকায় একসঙ্গে এত মানুষের মৃত্যু হওয়া সম্ভব নয়। আপাতত জেলা প্রশাসনকে গোটা বিষয়টি জানানো হয়েছে। ‌‌দূর থেকে ১০-১২টি মরদেহ ভেসে আসতে দেখা গিয়েছিল। আপাতত যা বোঝা যাচ্ছে, বিগত ৫-৭ দিনে ধরে সেগুলো জলে ভাসছিল। জলে দেহ ভাসানোর প্রথা আমাদের এখানে নেই। দেহগুলোর সৎকারের ব্যবস্থা করছি আমরা।

করোনা সংক্রমণের প্রকোপে বিপর্যস্ত ভারতের বিহার রাজ্যে সোমবার সকালে হাড় হিম করা একটি দৃশ্য দেখা গেছে। রাজ্যটিতে গঙ্গা নদীর পরিচিত একটি ঘাটের ধারে পড়ে থাকতে দেখা গেছে সারি সারি অসংখ্য লাশ। ধারে লেগে থাকা লাশগুলো ছিঁড়ে খাচ্ছিল কিছু কুকুর।

দেশটির সংবাদমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, মর্মান্তিক ও হৃদয়বিদারক এই দৃশ্যটি দেখা গেছে ভারতের বিহারের বক্সার জেলার চৌসা গ্রামে। আশঙ্কা করা হচ্ছে, যেসব মানুষের মরদেহ ভেসে এসেছে তাদের সবাই করোনা আক্রান্ত। এ নিয়ে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় ওই এলাকায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, সোমবার সকালের দিকে গঙ্গায় মরদেহগুলো ভাসতে দেখা যায়। এরপর স্থানীয় কর্তৃপক্ষ মরদেহগুলো নদীর ধারে তুলে রাখার ব্যবস্থা করে। স্থানীয়দের অনুমান, গঙ্গার উল্টো পাড়ে উত্তরপ্রদেশ, ওই দিক দিয়েই ভেসে এসেছে দেহগুলো।

তাদের দাবি, ওই এলাকায় একসঙ্গে এত মানুষের মৃত্যু হওয়া সম্ভব নয়। আপাতত জেলা প্রশাসনকে গোটা বিষয়টি জানানো হয়েছে। বক্সারের এসডিও কেকে উপাধ্যায় বলেন, ‌‌দূর থেকে ১০-১২টি মরদেহ ভেসে আসতে দেখা গিয়েছিল। আপাতত যা বোঝা যাচ্ছে, বিগত ৫-৭ দিনে ধরে সেগুলো জলে ভাসছিল।

জলে দেহ ভাসানোর প্রথা আমাদের এখানে নেই। দেহগুলোর সৎকারের ব্যবস্থা করছি আমরা। তবে চৌসার স্থানীয় কর্মকর্তা অশোক কুমার বলেন, সেখানে ৪০ থেকে ৫০টি লাশ ভেসে থাকতে দেখা গেছে।

মহাদেবা ঘাট নামক ভুতূরে আকার ধারণ করা ওই ঘাঁটে দাঁড়িয়ে তিনি বলেন, ‘হয়তো লাশগুলো নদীতে ছুঁড়ে ফেলা হয়েছে। লাশের সংখ্যা একশ পর্যন্ত হতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি।

সূত্র : ঢাকাপোস্ট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *