ঢাকা, ১৪ এপ্রিল ২০২১, বুধবার

কোনো মৃত্যুই কাঙ্ক্ষিত নয়, এজন্য আমরা দুঃখিত

Facebook
WhatsApp
Twitter
Google+
Pinterest
কমিশন

আমিতো মনেকরি ভোট ভালো হয়েছে। যদিও যে মৃত্যুটি হয়েছে সেটি কোনো পুলিশের গুলিতে হয়নি। তার শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন নেই। এখন এই মৃত্যুটি কীভাবে হয়েছে সেটি ময়নাতদন্ত হলেই আমরা বুঝতে পারবো।

ঢাকা : নির্বাচন কমিশন সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার বলেছেন, পঞ্চমধাপের পৌরসভা নির্বাচনে সৈয়দপুরে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। কোনো মৃত্যুই কাঙ্ক্ষিত নয়। এজন্য আমরা সবাই দুঃখিত।

২৮ ফেব্রুয়ারি রোববার সন্ধ্যায় ভোটগ্রহণ শেষে নির্বাচন ভবনের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মো. হুমায়ুন কবীর বলেন, ২৯টি পৌরসভা, চারটি উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচন এবং জেলা পরিষদের উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। কোনো কেন্দ্রের ভোট বন্ধ করা হয়নি। আমাদের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও মনিটরিং সেল ঘণ্টায় ঘণ্টায় যে প্রতিবেদন পাঠিয়েছে তাতে এখন পর্যন্ত যা বুঝতে পেরেছি দেশে যে নির্বাচনটি হয়েছে, তা উৎসবমুখর পরিবেশে সম্পন্ন হয়েছে।

সৈয়দপুরে সরকারি মহিলা ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রের পাশে, কেন্দ্র থেকে দূরে, দু’টি গাড়ির মধ্যে, ছোটন অধিকারী নামের একজন ব্যক্তি ইন বিটুইন ৫২ টু ৫৮ আহত অবস্থায় ছিলেন।  তাকে পুলিশ উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা যান। তার শরীরে কোনো ধরনের আঘাতের চিহ্ন কোনো ছিল না। সুরতহালে এরকমই পাওয়া গেছে।

কোনো আঘাতে চিহ্ন নেই। তার মৃত্যুর কারণটি জানতে গেলে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে আমরা বলতে পারবো। ভোটকেন্দ্র থেকে অনেক দূরে দুই প্রার্থীর মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। এক পর্যায়ে পুলিশ তাকে উদ্ধার করেছে।  এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নির্বাচন কেমন হয়েছে সেটি আপনারাই বলতে পারবেন।

আমিতো মনেকরি ভোট ভালো হয়েছে। যদিও যে মৃত্যুটি হয়েছে সেটি কোনো পুলিশের গুলিতে হয়নি। তার শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন নেই। এখন এই মৃত্যুটি কীভাবে হয়েছে সেটি ময়নাতদন্ত হলেই আমরা বুঝতে পারবো। নির্বাচন বর্জনের বিষয়ে মো. হুমায়ুন কবীর বলেন, যদি কেউ নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করে সেটি নিতান্তই তার ইচ্ছে।

তিনি করতেই পারেন। তিনি যদি আমাদের অভিযোগ করেন, আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখবো। আমাদের ফিল্ড লেভেলে রিটার্নিং অফিসার আছেন, আমাদের ল অ্যান্ড এনফোর্সিং এজেন্সি আছে, জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রয়েছেন। কাজেই সবাই কিন্তু আইন-শৃঙ্খলা দেখেন।

কিন্তু নির্বাচন পরিচালনার জন্য মূল ব্যক্তি হলেন রিটার্নিং অফিসার। কমিশনেও যদি তারা কোনো ধরনের অভিযোগ করেন তদন্ত করে দেখবো। আজ যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে সেখানে আপনারা জানেন চারঘাটে ককটেল বিস্ফোরণ হয়েছে, কোনো দুষ্কৃতিকারী চার্জ করেছে। সেখানে চারজনকে তাৎক্ষণিকভাবে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী পরিস্থিতি শৃঙ্খলার মধ্যে এনেছেন। তিনি বলেন, রিটার্নিং অফিসার আমাদের জানিয়েছেন, সেখানে ভোট সুষ্ঠু হয়েছে। ইভিএমে জালভোট দিতে গেলে একজনকে পাঁচ হাজার টাকা জরিামানা করা হয়েছে। আমাদের মাঠে অ্যাকশন ছিল। যার কারণেই আমরা বলতে পারি, এই নির্বাচনটি সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

স্থগিত চারটি কেন্দ্রের ভোটও সুষ্ঠু হয়েছে। তাই বলতে পারি, যে কেউ ইচ্ছা করলে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করতে পারেন। এটি নিতান্তই তার ব্যাপার। ইউপি নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেওয়ার ঘোষণা নিয়ে তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন সব সময় চায় প্রতিটি ব্যক্তি, প্রতিটি দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুক। আমাদের কাছে যে সহযোগিতা চাইবেন, নির্বাচন কমিশন সে বিষয়ে সহযোগিতা দেবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *