ঢাকা, ২৭ জুলাই ২০২১, মঙ্গলবার

আর্শীবাদের প্রযুক্তি আমাদের জন্য অভিশাপ

Facebook
WhatsApp
Twitter
Google+
Pinterest

প্রযুক্তি অলসতার বড় প্রভাবক হিসেবে কাজ করছে। বৃদ্ধি করছে অন্যায়, অপরাধ। প্রযুক্তি এক ক্লিকে সহজে অনেক কাজ করে দিচ্ছে। অন্যদিকে অনেক কাজ কঠিনও করে দিচ্ছে। শারীরিক ও মানসিকভাবে করে তুলছে অবসাদগ্রস্থ। প্রযুক্তির অপব্যবহার কমিয়ে দিচ্ছে মানুষের ব্যবহারিক জ্ঞানের পরিধি।

প্রতিটি বিষয়ের ভালো দিকের পাশাপাশি খারাপ দিকও আছে। তেমনি প্রযুক্তির জয়জয়কার শুধু সুখের বার্তা বয়ে আনছে, তা কিন্তু নয়। আমরা প্রযুক্তির মাধ্যমে যেমন দিন দিন গতিশীল হচ্ছি, তেমনি কৃত্রিমতা আর অলসতায়ও আবদ্ধ হয়ে যাচ্ছি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম আমাদের খুব সক্রিয়ভাবে আক্রান্ত করে ফেলেছে। কোনোভাবেই আমরা এ জালের বাইরে যেতে পারছি না।

একসময় মনের ভাব প্রকাশে মানুষ চিঠি লিখত। মনের কথা কাউকে বলার জন্য অনেক ব্যবস্থা গ্রহণ করত। এখন ফেসবুক বার্তায় তা সমাপ্ত হয়। হোয়াটঅ্যাপ, ম্যাসেজ্ঞারসহ নানা অ্যপসে হয় কথা। কিন্তু তার মাঝে কোনো আন্তরিকতা থাকে না। বরংচ এগুলো মানুষকে আরো যান্ত্রিক করছে। ছড়াচ্ছে স্ক্যান্ডাল। বাড়ছে আত্নহত্যাসহ অপরাধ।

প্রযুক্তি অলসতার বড় প্রভাবক হিসেবে কাজ করছে। বৃদ্ধি করছে অন্যায়, অপরাধ। প্রযুক্তি এক ক্লিকে সহজে অনেক কাজ করে দিচ্ছে। অন্যদিকে অনেক কাজ কঠিনও করে দিচ্ছে। শারীরিক ও মানসিকভাবে করে তুলছে অবসাদগ্রস্থ। প্রযুক্তির অপব্যবহার কমিয়ে দিচ্ছে মানুষের ব্যবহারিক জ্ঞানের পরিধি।

শিশুদের জন্য বড় বিপদ হলো এই প্রযুক্তি । ইউটিউবে কার্টুন দেখাসহ বাচ্চারা এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় যুক্ত হয়ে যাচ্ছে। একটু বয়স হলেই তারা হাতে পেয়ে যাচ্ছে স্মার্টফোন। আর এতেই গ্রাস করে নিচ্ছে তাদের চিন্তা ও বুদ্ধি। ভার্চুয়াল জগতে বন্দি হয়ে যাচ্ছে শিশু-কিশোর-তরুণ সমাজ।

প্রযুক্তির কারণে বেড়ে গেছে প্রতারণা। ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা হাতিয়ে নেওয়াসহ সোশ্যাল মিডিয়ার আইডি হ্যাক করে খুব সহজেই ব্লাকমেইল করা হচ্ছে। যদিও মানুষ সহজেই এটি ব্যবহার করে টাকা লেনদেনসহ নানা কাজও মেটাতে পারছে।

আমাদের যে কোনো পরিকল্পনা করতে হলে বা জানতে হলে আগেই গুগলে সার্চ দিয়ে দেখি। অনেক কাজের সমাধান আমরা পেয়েও যাই। এই কারণে আমাদের বিশ্লেষণ দক্ষতা বা মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা অকেজো হয়ে যাওয়ার সম্মুখীন হচ্ছে। অনেক ভালো ছাত্রকেও আজ সিদ্ধান্ত নিতে প্রযুক্তির দ্বারস্থ হয়ে।

প্রযুক্তির কালো থাবার অপর প্রান্তটি মুদ্রার ঠিক উল্টো পিঠের মতোই। প্রযুক্তির অপব্যবহার রোধ করে এর সুফল নেয়া সম্ভব। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ সেটি করে দেখিয়েছে। কিন্তু আমরা ? অভিভাবকদের অসচেতনতা, অদূরদর্শীতায় আমাদের দেশে আর্শীবাদের পরিবর্তে অভিশাপে পরিণত হচ্ছে সময়ের প্রযুক্তি।

-জিয়াউল হক, সাংবাদিক ও সমাজকর্মী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *